শুক্রবার , ২০ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » এইচটি ইমাম মিথ্যা বলেছেন: প্রধানমন্ত্রী

এইচটি ইমাম মিথ্যা বলেছেন: প্রধানমন্ত্রী

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের বিসিএস পাইয়ে দেয়া ও সংসদ নির্বাচনে নিজেদের নিয়োগকৃত পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেটদের সহায়তা প্রসঙ্গে দেয়া বক্তব্য নিয়ে সমালোচনার পর এ নিয়ে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে বলে দাবি করেছিলেন এইচটি ইমাম।

কিন্তু সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হসিনা জানালেন, তার এই রাজনৈতিক উপদেষ্টার সঙ্গে দেখাও হয়নি, কথাও হয়নি।

এদিন বৈঠকে এইচ টি ইমামের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ারও দাবি তোলেন আওয়ামী লীগের মন্ত্রিপরিষদ সদস্যরা।

ছাত্রলীগের সভায় গত সংসদ নির্বাচন নিয়ে এইচটি ইমামের বক্তব্য প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এখানে ক্রেডিট নেয়ার কী আছে। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে পুলিশ কাজ করেছে। শুধুই কী সেখানে পুলিশ ছিল? জনগণ ইলেকশন করেছে। তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করলে নির্বাচন হতে পারত না।’

মন্ত্রিসভা বৈঠকে এইচ টি ইমামের প্রসঙ্গ তোলেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম প্রমুখ।

এসময় প্রধানমন্ত্রী দুঃখ করে বলেন, ‘আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি ভালো কাজ করার জন্য। যখন একটি ভালো কাজ নিয়ে আগাই আপনারা সে সম্পর্কে বলবেন। সেটা না করে নতুন কিছু বলে বিতর্ক সৃষ্টি করা ঠিক নয়। যার যার দায়িত্ব নিয়ে কথা বলতে হবে।’

প্রসঙ্গত, গত বুধবার ছাত্রলীগের সভায় এইচ টি ইমাম গত ৫ জানুয়ারির নির্বাচন নিয়ে বলেন, ‘নির্বাচনের সময় পুলিশ ও প্রশাসনের যে ভূমিকা, নির্বাচনের সময় আমি প্রত্যেকটি উপজেলায় কথা বলেছি, সব জায়গায় আমাদের যাঁরা রিক্রুটেড, তাদের সঙ্গে কথা বলে তাদের দিয়ে মোবাইল কোর্ট করিয়ে আমরা নির্বাচন করেছি। তারা আমাদের পাশে দাড়িয়েছেন, বুক পেতে দিয়েছেন।’

এই বক্তব্য দিয়ে সমালোচনা শুরু হওয়ার পর গতকাল রোববার এইচটি ইমাম বিবিসি বাংলাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, ছাত্রলীগের সভায় বক্তব্য নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার কথা হয়েছে এবং প্রধানমন্ত্রীর উপদেশ অনুযায়ী আগামীকাল (সোমবার) এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বিষয়টি খোলাসা করতে বক্তব্য দেবেন।

এদিকে নির্ধারিত সংবাদ সম্মেলনে এইচটি ইমাম দাবি করেন, গণমাধ্যম তার বক্তব্য খণ্ডিত ও বিকৃতভাবে উপস্থাপন করেছে।

তবে প্রধনমন্ত্রী মন্ত্রিসভার বৈঠকে বললেন, এই সংবাদ সম্মেলন করার আগে এইচটি ইমামের সঙ্গে তার কোনো কথাও হয়নি, দেখাও হয়নি।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের শ্রমিক অধিকার নিয়ে বিদেশিদের উপদেশবাণীতে এক প্রকার উষ্মা প্রকাশ করে বলেন, ‘শ্রমিক অধিকার নিয়ে আমেরিকানরা বিভিন্ন সময় উপদেশ দেন। আপনরাও তাদের দেশ পরিদর্শন করুন এবং দেখুন তারা শ্রমিকদের কতটুকু অধিকার দিচ্ছে।’

#


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print