সোমবার , ২৩ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » স্বাস্থ্য » এবোলা শনাক্তকরণে আরও দ্রুত পদ্ধতি কেন ব্যবহার করা হচ্ছে না?

এবোলা শনাক্তকরণে আরও দ্রুত পদ্ধতি কেন ব্যবহার করা হচ্ছে না?

পশ্চিম আফ্রিকায়  মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়তে থাকা এবোলায় একজন মানুষ আক্রান্ত কিনা, তা দ্রুত শনাক্ত করা এবং সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়াটা খুবই জরুরি। কিন্তু সম্প্রতি নিউ ইয়র্কে এক শিশুর এবোলা সংক্রমণের আশংকায় তার ওপরে চালানো হয় যেই টেস্ট তাতে সময় লাগে প্রায় ১২ ঘণ্টার মতো। অথচ একটি নতুন এবোলা টেস্ট আছে যার ফলাফল এক ঘণ্টার মাঝে জানা যায়। তবে এই নতুন টেস্ট কেন ব্যবহার করা হচ্ছে না?

সম্প্রতি পশ্চিম আফ্রিকা থেকে নিউ ইয়র্কে ফিরে আসার পর পাঁচ বছর বয়সী এক ছেলের জ্বর এসে পড়ে। এবোলা সংক্রমণের আশংকায় তার ওপরে করা হয় ১২ ঘণ্টার এক টেস্ট। সৌভাগ্যবশত এই টেস্টের ফলাফল আসে নেতিবাচক, অর্থাৎ এবোলা সংক্রমণ হয়নি তার মাঝে।

আমেরিকার FDA (Food and Drug Administration) এমন একটি টেস্টের ব্যবহার অনুমোদন করেছে যাতে রোগীর শরীরে এক ঘণ্টার মাঝে এবোলা শনাক্ত করা যেতে পারে। কিন্তু এই পদ্ধতি নিউ ইয়র্কে চালু হয়নি এখনো পর্যন্ত। এই পদ্ধতি কতোটা সঠিক তা জানা গেলে তারপরই তা ব্যবহার করা হবে।

এই পদ্ধতিতে ব্যবহার করা হয় ছোট প্রিন্টারের মতো আকৃতির একটি যন্ত্র, যা রক্ত বা মুত্রের নমুনা থেকে এক ঘণ্টার মাঝে শনাক্ত করতে পারে এবোলা। এবোলা চিকিৎসায় যেখানে প্রতি মিনিটের মূল্য অনেক, সেখানে এই পদ্ধতি নিঃসন্দেহে জরুরি। মিডওয়েস্ট কোম্পানি জানায়, বর্তমান পরিস্থিতির আলোকে তাদের তৈরি এই যন্ত্র ব্যবহারের জন্য এমার্জেন্সি অ্যাপ্রুভাল দেয় FDA।

আগস্ট মাস থেকে এই যন্ত্র ব্যবহৃত হয়ে আসছে পশ্চিম আফ্রিকার বিভিন্ন জায়গায় এবং কিছু কিছু হাসপাতাল ইতোমধ্যেই ফ্লু এবং অন্যান্য ভাইরাস শনাক্ত করার জন্য এটি ব্যবহার করছে।

 


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print