শুক্রবার , ২৭ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » ক্রিকেট » মুস্তাফিজের বাড়িতে ঈদের আনন্দ!

মুস্তাফিজের বাড়িতে ঈদের আনন্দ!

download (1)পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতেই প্রতিভার ঝলক দেখা গিয়েছিল তার। কাল ভারতের বিপক্ষে অভিষেক ওয়ানডেতে সেই প্রতিভার স্ফুরণ ঘটল। সেই বাঘের আঁচড়েই ধোনীর ‘মহাভারতের’ ভরাডুবি হলো। অভিষেকে ওয়ানডে ম্যাচে দশম বোলার হিসেবে নিলেন ৫ উইকেট। হয়েছেন ম্যাচ সেরাও। স্বপ্নের মত অভিষেক আর কাকে বলে! বলা হচ্ছিল বাংলাদেশ দলের নবীন সদস্য মুস্তাফিজুর রহমানের কথা।

মুস্তাফিজুরের অসাধারণ পারফরম্যান্সের পর স্বাভাবিকভাবেই মুস্তাফিজের গ্রামে চলছে উল্লাস। তার বাড়িতে চলছে ঈদের আনন্দ উৎসব। বাড়িতে ভিড় জমাচ্ছে নানা শ্রেণির মানুষ। বাবা-মাকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন গ্রামবাসীরা।

শুধু মুস্তাফিজের গ্রাম কিংবা নিজ জেলা সাতক্ষীরা নয়, গোটা দেশে চলছে বিজয় উল্লাস। সাতক্ষীরাবাসীর আনন্দের পারদ আরও একটু বাড়িয়ে দিয়েছে সৌম্য সরকারের অর্ধশতক। এ যেনও সাতক্ষীরাবাসীর ঈদের আগেই আরেকটি ঈদ।

মুস্তাফিজের এই সাফল্যে খুশির শেষ নেই তার পরিবারে। বাবা আবুল কাশেম বলেন, ‘ভারতের মতো ক্রিকেট পরাশক্তিকে আমরা হারিয়েছি এর চেয়ে আনন্দের কিছু হতে পারে না। সেই ম্যাচে আমার সন্তান ম্যাচ সেরা হয়েছে। আমার অনুভূতি বোঝাতে পারবো না। সন্তানের এই অর্জনে আমি খুবই খুশি। তার এই অর্জনে এলাকার মানুষ ঈদের মতোই আনন্দ করছে। তার জন্য সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা করছি।’

মুস্তাফিজুরের বড় ভাই মোখলেসুর রহমান জানান, ‘আমার ভাইয়ের এই কৃতিত্বে পরিবারে বইছে আনন্দের বন্যা।’ এক পর্যায়ে আনন্দে কেঁদেই ফেলেন তিনি।

মোস্তাফিজের এই সাফল্যে তার  ক্রিকেট গুরু আলতাফ হোসেনও আনন্দিত। তিনি সৌম্য সরকারেরও গুরু। বললেন, `সৌম্য এবং মুস্তাফিজুর দু’জনই আমার ছাত্র। দু’জনই একসঙ্গে জাতীয় দলে খেলছে। একজন বোলার আরেকজন ব্যাটসম্যান-এর চেয়ে আনন্দের কিছু হতে পারে না।’

যাকে নিয়ে সবার এতো উচ্ছ্বাস সেই মুস্তাফিজ ম্যাচ শেষে সাংবাদিকদের সামনে তেমন কিছু বলতে পারেননি। তবে ফোনে জানালেন সাফল্যের রহস্য। কি ভাবছিলেন খেলার আগে-এ প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘আসলে এই ম্যাচকে ঘিরে আলাদা কোনও পরিকল্পনা ছিল না আমার। আর দশটা ম্যাচের মতোই খেলতে নেমেছি। চেষ্টা ছিল দলকে জেতানোর জন্য নিজের সেরাটা দেওয়ার। তা পেরেছি বলে খুব ভালো লাগছে।’

বোলার হিসেবে পাঁচ উইকেট পেয়ে কেমন লাগছে- জানতে চাইলে বলেন, ‘উইকেট পাওয়াটা সবসময় আনন্দের। আর পাঁচ উইকেট পাওয়া সব বোলারদের স্বপ্নের মতো। অভিষেক ম্যাচে এই পারফরম্যান্সে আমি আনন্দিত।’

এখানেই থেমে যেতে চান না মুস্তাফিজ। আর তাই দোয়া চাইলেন সবার। বললেন, ‘আমি যেনও আমার পারফর্মটা ধরে রাখতে পারি তার জন্য সবাই দোয়া করবেন।’


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print