বুধবার , ২৫ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » ভারতে বাণিজ্যিক ভিসা পাবেন বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা

ভারতে বাণিজ্যিক ভিসা পাবেন বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা

29436-modiপ্রতিবেশী দেশ ভারতে বাণিজ্যিক ভিসা সুবিধা পাবেন বাংলাদেশসহ সার্কভুক্ত দেশের ব্যবসায়ীরা। এরই মধ্যে দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার পাকিস্তানি ব্যবসায়ীদের জন্য তিন বছরের ভিসার ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে এ কাজ শুরুর উদ্যোগ নিয়েছে। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

জানা গেছে- ভারত পাকিস্তানের জন্য একটি তৃতীয় ক্যাটাগরির বাণিজ্যিক ভিসার পরিকল্পনা করছে। যা তিন বছর মেয়াদি হবে এবং প্রতিবেশী দেশগুলোর ব্যবসায়ীরা এর মাধ্যমে ভারতের ১৫ টি এলাকা ঘুরতে পারবেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গত বছর নেপালে অনুষ্ঠিত সার্ক শীর্ষ সম্মেলনে ঘোষণা দিয়েছেলেন- ভারত সার্কভুক্ত দেশগুলোকে তিন থেকে পাঁচ বছরের বাণিজ্যিক ভিসা সুবিধা প্রদান করবে। এরপরই দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার বিষয়টির উদ্যোগ নিতে শুরু করে এবং ‘চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী’ পাকিস্তানকে দিয়েই এর সূচনা করার আগ্রহ পোষণ করে।

ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়- বর্তমানে ব্যবসা ভিসা শুধুমাত্র এক বছরের জন্য বাংলাদেশ ও পাকিস্তান থেকে প্রদান করা হয়।

এদিকে ব্যবসা ভিসা ইস্যুতে বাংলাদেশের কিছু বিষয়ে আপত্তি জানিয়েছে ভারতের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো। তবে দেশটির বর্তমান সরকার আঞ্চলিক সম্পর্ক জোরদার করার মাধ্যমে অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার মানসে এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের ব্যাপারে বেশ আগ্রহী। ‘চিরশত্রু’ পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক ভাল করতেও তারা আগ্রহী।

জানা গেছে- বর্তমানে পাকিস্তান হতে ব্যবসায়ীদের দু’ধরনের ব্যবসায়িক ভিসা প্রদান করা হয়। প্রথমত, মাল্টিপল এন্ট্রি ভিসা যাতে এক বছরে ব্যবসায়ীরা চার বার পাঁচটি জায়গায় যেতে পারে।

দ্বিতীয়ত, ওই সকল ব্যবসায়ী যাদের বার্ষিক বিক্রি ৩০ লাখের উপরে যায়- তাদের আরো এক বছর বেশি ভিসা সুবিধা দেয়া হয়। সেই সঙ্গে ১০ টির বেশি স্থানে তারা যেতে পারেন। এতে পুলিশি প্রতিবেদনের প্রয়োজন হয়না।

এদিকে ভারত যে তৃতীয় ক্যাটাগরির ভিসার বিষয়টি প্রস্তাবনায় এনেছে সেটিও পুলিশি প্রতিবেদনের বিষয় থেকে মুক্ত থাকবে।

ভারতের একজন একজন সিনিয়র সরকারি কর্মকর্তা এ বিষয়ে জানান, সার্ক অঞ্চলের অর্থনীতিতে উন্নতি করতে হলে আমাদের বাস্তবভিত্তিক পদক্ষেপ নিতে হবে। আমরা কেবল ব্যবসায়ীদের জন্য ভিসাকে সহজ করার কথা ভাবছি। পাকিস্তানকে সুবিধা দেয়ার পদ্ধতিও আলোচনা করা হচ্ছে।

তিনি আরো জানান- ইতোমধ্যে তারা মালদ্বীপ, ভুটান, শ্রীলংকা, আফগানিস্তানসহ বেশ কয়েকটি সার্কভুক্ত দেশের ভিসা পদ্ধতি পর্যালোচনা করেছে। তার মধ্যে নেপালি নাগরিকদের ভারতে আসতে ভিসার কড়াকড়ি নেই বলেও জানান তিনি।

তিনি আরো জানান- সার্কে প্রধানমন্ত্রীর (নরেন্দ্র মোদি) ঘোষণা কেবল পাকিস্তানের জন্যই ছিলনা, এর সঙ্গে অন্যান্য দেশগুলোও সম্পৃক্ত। আমাদের বাস্তবভিত্তিক পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। ভারত সার্ক দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় অর্থনীতির দেশ। এগিয়ে যেতে হলে তাই পাকিস্তানের সঙ্গে বিরোধকে বড় করে দেখার কিছু নেই।

এ ইস্যুতে সম্প্রতি ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেখানে ইন্টেলিজেন্স ব্যুরো এ ধরনের পদক্ষেপের বিরোধিতা করে বলে জানা গেছে।

সরকারি ওই কর্মকর্তা আরো বলেন, আমদের বাস্তবতা অনুধাবন করতে হবে। কিছু বিষয় ভারসাম্য করতে হবে। ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রী বাণিজ্যিক ভিসার বিষয়টি ঘোষণা করেছে। যা থেকে ফিরে আসা এখন রীতিমত বিব্রতকর হবে।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print