শনিবার , ২১ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » বেসরকারি » সাম্প্রদায়িক গুজব ছড়িয়ে হাসপাতালে হামলা: আহত ২৫

সাম্প্রদায়িক গুজব ছড়িয়ে হাসপাতালে হামলা: আহত ২৫

communal_attack_doctor_nurse20150522214240“মুসলমান রোগীকে হিন্দু নার্স ইনজেকশন দিয়ে মেরে ফেলেছে”, এমন গুজব ছড়িয়ে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলা হাসপাতালের কর্তব্যরত হিন্দু ধর্মাবলম্বী ডাক্তার ও নার্সের উপর হামলা করেছে স্থানীয় মৌলবাদী গোষ্ঠী। এসময় পুলিশের সাথে স্থানীয় বিক্ষুব্ধ জনতার সংঘর্ষে পুলিশ ও হাসপাতালের কর্মচারী সহ প্রায় ২৫ জন আহত হন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (১৯ মে) গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার মিত্রডাঙ্গা গ্রামের ননী গোপাল বালার মেয়ে মনা ভারতী অসুস্থ হয়ে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি হন। উল্লেখ্য, বেশ কিছুদিন আগে তিনি হিন্দু ধর্ম থেকে ধর্মান্তরিত হয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন এবং খাদিজাতুল কোবরা নাম ধারণ করেন।

শুক্রবার (২২ মে) বেলা পৌনে ১১ টার দিকে খাদিজাতুল কোবরা (মনা ভারতী) বেশি অসুস্থ বোধ করলে হাসপাতালের কর্তব্যরত নার্স কাকতী রানী বল তার শরীরে ইনজেকশন পুশ করেন। এর কিছুক্ষণ পর মনা ভারতী মৃত্যুবরণ করেন।

মনা ভারতীর মৃত্যুর খবর পেয়ে স্থানীয় মাদ্রাসার ছাত্ররা একটি গুজব ছড়ায় যে, একজন মুসলমান রোগীকে হাসপাতালের হিন্দু নার্স ইনজেকশন পুশ করে মেরে ফেলেছে। এ গুজব ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় জনগণ ক্ষোভে ফেটে পড়ে। এসময় স্থানীয় বিক্ষুব্ধ জনতা ও মাদ্রাসার ছাত্ররা মিলে হাসপাতালে হামলা চালায় এবং ব্যাপক ভাঙচুর করে।

এসময় সাম্প্রদায়িক উষ্কানি দিয়ে হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও কর্মচারীদের বেধড়ক পিটিয়ে আহত করে মাদ্রাসার ছাত্র ও স্থানীয় জনগণ। বিশেষ করে হাসপাতালের হিন্দু ধর্মাবলম্বী চিকিৎসক, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা পবিত্র কুমার কুন্ডু এবং নার্স কাকতী রানী বলকে মারধর করে গুরুতর আহত করে হামলাকারীরা। এছাড়াও তারা চিকিৎসক, নার্স ও কর্মচারীদের বাসভবনে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সেখানে পুলিশ উপস্থিত হলে পুলিশের উপরও চড়াও হয় হামলাকারীরা। এসময় পুলিশ কনস্টেবল শেখর সহ ৭ পুলিশ কনস্টেবল এবং অপর দশজন আহত হন। পরে টিয়ারসেল ও রাবার বুলেট ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ।

পরে জেলা প্রশাসক মো. খলিলুর রহমান ও পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শে জাহিদ হোসেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সফিউল্লাহ, টুঙ্গিপাড়ার পৌর মেয়র ইলিয়াস হোসেন সরদার প্রমুখ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print