সোমবার , ২৩ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » ক্রিকেট » প্রতি মিনিটে আয় ৪৭ কোটি টাকা!

প্রতি মিনিটে আয় ৪৭ কোটি টাকা!

encomeপ্রতি মিনিটে যুক্তরাষ্ট্রের মুষ্টিযোদ্ধা ফ্লয়েড মেওয়েদার আয় করেন ৬০ লাখ ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৪৭ কোটি টাকা। প্রতি মিনিটে মানুষ ১৫-১৬ বার শ্বাস-প্রশ্বাস নেয়। অর্থাৎ প্রতিবার শ্বাস-প্রশ্বাস নেয়ার সময় মেওয়েদারের আয় প্রায় তিন কোটি টাকা!

প্রতিবছর খেলোয়াড়দের বার্ষিক আয়ের হিসাব দেয় ইএসপিএন সাময়িকী। তাতেই উঠে এসেছে, গত ২ মে থাইল্যান্ডের ম্যানি প্যাকিয়াওকে হারিয়ে ওয়ার্ল্ড বক্সিং অর্গানাইজেশনের খেতাব জেতায় এ বছর সবচেয়ে বেশি আয় করা ক্রীড়াবিদ মেওয়েদার। সেই লড়াইয়ের মোট আর্থিক মূল্য ছিল প্রায় ৫০ কোটি ডলার। যেটি ২০১৪ সালে টোঙ্গা দেশটির মোট জিডিপির সমান!

ওই লড়াই জিতে আনুমানিক ২৫ কোটি ডলার আয় করেছেন মেওয়েদার। আর হেরে প্যাকিয়াওয়ের পকেটে গেছে ১৫ কোটি ডলার। এক লড়াই দিয়েই মেওয়েদার যা আয় করেছেন, সারা বছর ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো আয় করেন এর পাঁচ ভাগের এক ভাগ!

এদিক দিয়ে লিওনেল মেসি কিছুটা সান্ত্বনা পেতে পারেন। অন্তত এ বছর রোনাল্ডোর চেয়ে তার আয় বেশি। স্বাভাবিকভাবেই এ বছরের তালিকায় প্রথম দুই স্থান দুই বক্সারের দখলে। এরপরই আছেন মেসি (৫ কোটি ৬৩ লাখ ডলার) এবং রোনাল্ডো (৫ কোটি ডলার)। রোনাল্ডোর ৫ কোটি ৫ দিয়ে গুণ করলেই বেরোচ্ছে মেওয়েদারের আয়!

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি আয় করা দশ খেলোয়াড়
১. ফ্লয়েড মেওয়েদার (বক্সিং): ১ হাজার ৯৪৪ কোটি টাকা
২. ম্যানি প্যাকিয়াও (বক্সিং): ১ হাজার ১৬৬ কোটি টাকা
৩. লিওনেল মেসি (ফুটবল): ৪৩৮ কোটি টাকা
৪. ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো: ৩৯০ কোটি টাকা
৫. সেবাস্তিয়ান ভেত্তেল (ফর্মুলা ওয়ান): ৩৮৮ কোটি টাকা
৬. ফার্নান্দো আলোনসো (ফর্মুলা ওয়ান): ৩১১ কোটি টাকা
৭. জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ (ফুটবল): ২৭৩ কোটি টাকা
৮. লুইস হ্যামিল্টন (ফর্মুলা ওয়ান): ২৪১ কোটি টাকা
৯. ক্লেটন কারশ (বেসবল): ২৪১ কোটি টাকা
১০. জাস্টিন ভারল্যান্ডার (বেসবল): ২১৮ কোটি টাকা


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print