সোমবার , ২৩ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » বিশ্ববিদ্যালয় » অবশেষে নূর হোসেন বরখাস্ত

অবশেষে নূর হোসেন বরখাস্ত

নূর হোসেনেঅবশেষে নারায়ণগঞ্জে সাত খুনের মামলার প্রধান আসামি নূর হোসেনকে সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার স্থানীয় সরকার বিভাগ তাকে বরখাস্ত করে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে। তবে তা রোববার জানানো হয়েছে। প্রজ্ঞাপনে স্বাক্ষর করেছেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সহকারী সচিব জসিম উদ্দিন হায়দার।

বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইনের এক মামলায় দণ্ড পাওয়ার সাত মাস পর তার বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেওয়া হলো।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ‘নূর হোসেন, কাউন্সিলর ৪ নং সাধারণ ওয়ার্ড, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন-এর বিরুদ্ধে বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত নারায়ণগঞ্জের মামলায় বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন, ২০১২-এর ধারা ৩৪ অনুযায়ী অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে তার পদ থেকে বরখাস্ত করা হল।’

এতে আরো বলা হয়, ‘যেহেতু সিটি করপোরেশন কাউন্সিলর নৈতিক স্খলনজনিত অপরাধে আদালতে দণ্ডিত হলে স্থানীয় সরকার আইন অনুযায়ী অপসারণযোগ্য হন, সেহেতু স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন, ২০০৯-এর ১৩ ধারা অনুযায়ী তাকে অপসারণ করা হল এবং আসন শূন্য ঘোষণা করা হল।’

পৃথক একটি প্রজ্ঞাপনে ওই শূন্য পদ পূরণে ৯০ দিনের বাধ্যবাধকতা থাকায় সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধও জানিয়েছে স্থানীয় সরকার বিভাগ।

২০১৪ সালের ১৫ মে নূর হোসেনের শিমরাইল মোড়ের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বিরল প্রজাতির বেশ কয়েকটি পাখিসহ প্রায় ৪১ প্রজাতির বন্য প্রাণী উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ। ঢাকা রেঞ্জের বন কর্মকর্তা মো. ফজলুর রহমান ওই দিনই বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইনে জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে মামলা করেন। সেই মামলায় গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর নূর হোসেন এক বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের চাঞ্চল্যকর সাত খুন মামলার প্রধান আসামি নূর হোসেন।  খুনের ঘটনার পর নূর হোসেন ভারতে পালিয়ে যান। পরে সেখানকার পুলিশ অনুপ্রবেশের অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করে। বর্তমানে ওই দেশের আদালতে তার বিরুদ্ধে মামলা চলছে। তাকে ফিরিয়ে আনার আইনি ও কূটনৈতিক প্রক্রিয়া চলছে।

নূর হোসেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ছিলেন। এ ছাড়া ফৌজদারি মামলাজনিত কারণে নারায়ণগঞ্জের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শাহজালাল বাদলকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

শাহজালাল সম্পর্কে নূর হোসেনের ভাতিজা। সাত খুনের ঘটনার পর থেকে শাহজালালও পলাতক। তাদের বিষয়ে নির্দেশনা চেয়ে গত বছরের অক্টোবরে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয় সিটি করপোরেশন। কিন্তু এত দিন চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত না দেওয়ায় তারা দুজনই কাউন্সিলর পদে বহাল ছিলেন।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print