মঙ্গলবার , ১৭ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » প্রধান খবর » ভাস্কর নভেরা আহমেদের জীবনাবসান

ভাস্কর নভেরা আহমেদের জীবনাবসান

noveraবাংলাদেশের আধুনিক ভাস্কর্য শিল্পের পথিকৃৎ নভেরা আহমেদ আর নেই।  ফ্রান্সের প্যারিসে নিজ বাসভবনে গত ৫মে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন।

দীর্ঘদিন ধরে তিনি বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। বেশ কিছুদিন হাসপাতালে থাকার পর চিকিৎসকের পরামর্শে গত ১মে তাকে বাসায় নিয়ে আসা হয়। গত ৫মে রাত প্রায় ৩টা-৪টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়। স্বামী গ্রেগোয়া দ্য ব্রনস নভেরাকে ঘুমে রেখে পাশের ঘরে গিয়ে ঘন্টা খানেক পর ফিরে দেখেন তাঁর আর শ্বাসপ্রশ্বাস নেই।

তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের অন্যতম রূপকার নভেরা আহমেদ দীর্ঘদিন ধরে  প্রবাসে জীবনযাপন করছেন। প্যারিসে  তিনি অনেকটা নিভৃতে শিল্পচর্চা করছিলেন। বাংলাদেশের ভাস্কর্য চর্চায় তাঁর অবদান বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য হলেও তিনি নিজেকে প্রচ্ছন্নে রাখতেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করতেন।

কিংবদন্তি শিল্পী নভেরা আহমেদের  জন্ম ১৯৩০সালে। তিনি লন্ডন, ইতালি ও প্যারিস থেকে ভাস্কর্যে পাঠ গ্রহণ করেন। নভেরার প্রথম একক ভাস্কর্য প্রদর্শনী আয়োজিত হয়েছিল ১৯৬০ সালে কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারে। এরপর দেশে বিদেশে অনেক প্রদর্শনী হয় তাঁর শিল্পকর্মের। সর্বশেষ ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে প্যারিসে তাঁর শিল্পকর্মের প্রদর্শনী আয়োজিত হয়েছিল। দীর্ঘদিন অন্তরালে থাকা এই শিল্পীর চার দশকেরও বেশি সময়ে সৃষ্ট মোট ৫১টি শিল্পকর্ম এই রেট্রোসপেকটিভ প্রদর্শনীতে স্থান পায়। এসবের মধ্যে ছিল ৪২টি চিত্রকর্ম ও নয়টি ভাস্কর্য। প্রদর্শনীটি প্রায় তিন মাস চলে।

১৯৯৭ সালে একুশে পদকে ভূষিত হলেও তিনি পদক গ্রহণ করতে দেশে আসেননি।

উল্লেখ্য, শিল্পী নভেরা আহমেদের শেষকৃত্য আগামী সোমবার সকালে ফ্রান্সের শঁতমেজল  সিমিতিয়েরে অনুষ্ঠিত হবে ।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print