রবিবার , ২২ জুলাই ২০১৮
মূলপাতা » অন্যান্য » পিন্টুর ২১৬০ দিনের কারাজীবনের অবসান

পিন্টুর ২১৬০ দিনের কারাজীবনের অবসান

pintu_sm_758178218বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের প্রাক্তন সভাপতি নাসির উদ্দীন আহম্মেদ পিন্টু মারা গেছেন। পিন্টুর মৃত্যুর মধ্য দিয়ে তার ৫ বছর ১১ মাস ১ দিন অর্থাৎ ২ হাজার ১৬০ দিনের কারাগার জীবনের অবসান হলো।

 

রোববার দুপুর ১২টা ১২ মিনিটে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের প্রিজন সেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পিন্টু মারা যান। এর আগে এদিন সকালে বুকে ব্যথা অনুভব করলে সকাল সাড়ে ১০টায় তাকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে হাসাপাতালে নেওয়া হয়।

 

বিএনপি নেতা নাসির উদ্দীন আহমেদ পিন্টু হার্ট, কিডনি, ব্লাড প্রেসার, চোখ ও বুকের সমস্যাসহ নানা রোগে ভুগছিলেন।

 

চলতি বছরের ২০ এপ্রিল পিন্টুকে কাশিমপুর কারাগার থেকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করা হয়।  এর আগে গত সপ্তাহেও হার্টের সমস্যায় তাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

 

পিলখানায় বিডিআর বিদ্রোহে সহযোগিতা করার অভিযোগে বিএনপির প্রাক্তন সংসদ সদস্য নাসির উদ্দীন আহম্মেদ পিন্টুকে ২০০৯ সালের ২ জুন গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

 

২০০১ সালে লালবাগ-হাজারীবাগ এলাকা থেকে নাসির উদ্দীন পিন্টু সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তত্ত্বাবধায়ক সরকার ক্ষমতা গ্রহণের সময়ও যৌথবাহিনীর হাতে পিন্টু গ্রেফতার হয়েছিলেন।
পিন্টুর বিরুদ্ধে হত্যা, ত্রাণের টিন আত্মসাৎ, চাঁদাবাজি, প্রায় ২০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগসহ নানা অভিযোগে ১৫টি মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।

 

সর্বশেষ ঢাকা দক্ষিন সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে মনোনয়নপত্র কিনে ফের আলোচনায় আসেন বিএনপির ওই নেতা। ঢাকা দক্ষিণের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে আইনজীবীর মাধ্যমে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন পিন্টু। তবে পিলখানা হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত হওয়ায় পিন্টুর মনোনয়নপত্র বাতিল করে নির্বাচন কমিশন।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print