মঙ্গলবার , ২৪ এপ্রিল ২০১৮
মূলপাতা » ফুটবল » দশ বছরেই পুলিশ কমিশনার!

দশ বছরেই পুলিশ কমিশনার!

indiaগিরিশ শর্মা, ছোটবেলা থেকে স্বপ্ন দেখতেন পুলিশ কর্মকর্তা হবেন। সব কিছু ঠিকঠাক চলচ্ছিল। মাত্র দশ বছর বয়সে শরীরে বাসা বাঁধে এক মরণব্যাধি। জীবনের অধিকাংশ সময়ই তাকে শয্যাশায়ী থাকতে হবে। ভেবেছিল সব স্বপ্নই বুঝি শেষ হয়ে গেলো।

কিন্তুরূপকথার মতো হঠাৎই তার স্বপ্ন বাস্তবে রুপ নিল। একদিনের জন্য শহরের পুলিশ কমিশনার বানানো হলো গিরিশ শর্মাকে। স্বপ্ন পূরণের সেই দিনে কমিশনারের সদরদপ্তরে কর্মকর্তা থেকে শুরু করে কনস্টবেল, সবাই তাকে গার্ড অফ অনার দিলেন। পেলেন একজন কমিশনারের পূর্ণ মর্যাদা দিলেন, খামতি থাকেনি কিছুর।

গিরিশ তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, সত্যিকার অর্থেই স্বপ্ন পূরন হল। সবসময় স্বপ্ন দেখতাম পুলিশ হব। আমি অপরাধীর বিরুদ্ধে কাজ করব এবং জনগন শান্তিতে বাস করবে এটা ছিল স্বপ্ন। আমি জানি না পুলিশ কিভাবে কাজ করে কিন্তু পুলিশের পোশাক পরা আমার জন্য সত্যিই আনন্দের। এটি কোন ক্ষমতার বিষয় নয় বরং এটি দায়িত্বের বিষয়।
গিরিশের বাড়ি হরিয়ানার সিরশা গ্রামে। তার বাবা একজন ফল বিক্রেতা।

কিডনিজনিত সমস্যা নিয়ে গত মাসে জয়পুরের জেকে লন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন গিরিশ। হাসপাতালে ভর্তি অবস্থায় স্বেচ্ছাসেবী এ উইস ফাউন্ডেশন তাকে দেখতে এসে তার ইচ্ছা সম্পর্কে জানতে চায়। সে তখন জানায় তার ইচ্ছা পুলিশ হওয়া। খবর যায় জয়পুর পুলিশ সদরদপ্তরে। সাড়া দেন তারাও। একদিনের জন্য হলেও তাকে পুলিশ কমিশনার করা হবে।
গিরিশ যখন একটি সাদা এ্যাম্বাসেডর গাড়িতে করে জয়পুরের পুলিশ সদরদপ্তরে পৌছায় তখন জয়পুর পুলিশের ডিসিপি ও এসিপি তাকে সম্ভাষন জানান। তাকে দেয়া হয় গার্ড অব অনার । গিরিশ যখন কয়েক মুহুর্তের জন্য পুলিশ কমিশনারের চেয়ার আলিঙ্গন করেন তখন উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তাদের চোখ ভিজে ওঠে। তারা গিরিশের দীর্ঘায়ু কামনা করেন।


আপনার মতামত

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*


Email
Print